মায়ের কাছে রান্না শিখছি : পড়শী

লকডাউনে কারণে মানুষ এখন ঘরবন্দী। অবসরের এই সময়টা সবাই পরিবারের সঙ্গেই কাটাচ্ছেন। কেউ আবার ছবি দেখে বা বই পড়ে দিনগুলো পার করছেন। অনেকে আবার সময়টা কাটাচ্ছেন শুয়ে-বসে।

তবে এমন একটি সুযোগ হাত ছাড়া করতে নারাজ সংগীতশিল্পী পড়শী। লকডাউনের দিনগুলোতে নতুন নতুন গান আর রান্নার হাতটাও একটু পাকা করে নিচ্ছেন তিনি।

দৈনিক আমাদের সময় অনলাইনকে পড়শী বলেন, ‘লকডাউনের কারণে সবাই এখন ঘরে। ফলে পরিবারের সঙ্গে দারুণ কিছু সময় কাটাচ্ছি। অবসরের সময়টাতে নিজের মতো করে গান তৈরি করছি। নিজের কথা ও সুরে ইতিমধ্যেই চার-পাঁচটি গান তৈরি করা হয়েছে। আরও কয়েকটি গানের কথা লিখেছি। খুব শিগগিরই সুর দেবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘লকডাউনের এই দিনগুলোতে মায়ের কাছে রান্না শিখছি। এ ছাড়াও নেট থেকে রান্না রেসিপিগুলো দেখছি। মাঝে-মধ্যে বানানোর চেষ্টাও করছি। তবে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি, দেশীয় খাবারগুলোর দিকে। আশা করি, এই লকডাউনে রান্নার কৌশলটা আয়ত্ব করতে পারব। পাশাপাশি ছবি আঁকা ও বাগানেও সময় দিচ্ছি।’

করোনার এই সময়ে সবাইকে উদ্দেশ করে পড়শী বলেন, ‘দিনদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। আমরা যদি এখনও সচেতন না হই, তাহলে সামনে অনেক বড় বিপদ আছে। সেটা খুব বেশি দূরে নয়। আসলে, আমাদের একটু সচেতনতাই পারে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে আমাদের রক্ষা করতে। বিশেষ প্রয়োজন না হলে, বাড়ির বাইরে যাওয়া থেকে কিছুদিন বিরত থাকি। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখি। পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকি এবং ঘনঘন দুই হাত সাবান-পানি পরিষ্কার করি।’

ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে দাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে এই সংগীতশিল্পী বলেন, ‘অসহায় মানুষের পাশে আমাদের দাঁড়াতে হবে, তাদের খোঁজ-খবর নিতে হবে। সবাইকে অনুরোধ করবো, নিজ নিজ অবস্থান থেকে ওদের পাশে দাঁড়ান। আপনি আপনার বাড়ির পাশের মানুষগুলোর খবর রাখলেই হবে।’